আগ্রার তাজমহল এখন বাংলাদেশে


বিশ্বের সপ্তাশ্চর্যের অন্যতম একটি বিশ্ময়কর সৃষ্টি হিসেবে তাজমহল সর্বজনস্বীকৃত। যদি তাজমহলটা ভারতে তৈরি না হয়ে বাংলাদেশে হত তাহলে কতই না ভাল হত। কথায় আছে-‘বন্দুক চাইলে গুলতি পাওয়া যায়’ কিংবা, ‘ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়’। বাংলাদেশের আহসানুল্লাহ মনি চেয়েছিলেন এবং বানিয়ে ফেলেছেন তার প্রত্যাশা আর স্বপ্নের তাজমহল। যারা দেখতে চান ঢাকা থেকে দশ মাইল পূর্বে গেলে খুঁজে পাবেন।

উইকিপিডিয়ার তথ্যমতে ৫ বছরের প্রচেষ্টা আর ৫৮ মিলিওন ডলার খরচ করে ব্যক্তিউদ্যোগে এই Tazmahal তৈরি করা হয়েছে। এর মালিক দাবি করেন যে- হীরা, মার্বেল পাথর আর ব্রোঞ্জ ইউরোপের কিছু দেশ থেকে তিনি আমদানি করেছেন। নিন্দুকেরা এই তথ্য যদিও অস্বীকার করে। 

ভারতীয় দূতাবাস এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ মনোভাব প্রকাশ করেছে। তারা জানিয়েছে কপিরাইট লঙ্ঘনের দায়ে মনিকে অভিযুক্ত করা হবে। রয়টার্স, গার্ডিয়ানসহ বিশ্বখ্যাত অনেক সংবাদমাধ্যমে এই তাজমহলের বিষয়টি ফলাও করে প্রচার করা হয়েছে।

ভারত যদি কপিরাইটের অভিযোগ তুলে আহসানুল্লাহ মনির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় তখন কি ঘটে সেটা একটা দেখার বিষয় বটে। যেহেতু এটাকে রেপ্লিকা হিসেবে বানান হয়েছে এবং প্রকৃত অর্থে আসল তাজমহলের সমকক্ষ নয়, এটাকে আইনি শাস্তির আওতায় আনাটা কতটা যৌক্তিক হবে সেটাও ভেবে দেখা দরকার।

http://adhitzads.com/843469

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s